সর্বশেষ খবর
Home / বান্দরবান / আলীকদম / আলীকদমে ফাঁসিতে ঝুলন্ত গৃহবধূর বুকে কামড়ের চিহ্ন !

আলীকদমে ফাঁসিতে ঝুলন্ত গৃহবধূর বুকে কামড়ের চিহ্ন !

 

নিউজ  ডেস্কঃ
বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় রেখা মণি (১৩) নামে এক গৃহবধূর ফাঁসিতে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উপজেলার চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের রেপারপাড়া বাজার চৌধুরী মো. রফিকুল ইসলামের ভাড়া বাসা থেকে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। সে রেপারপাড়া বাজার এলাকার বাসিন্দা মো. হোসেন প্রকাশ মাহোচনের স্ত্রী এবং নুরুল কবির মেম্বার পাড়ার আবু তালেব ও খতিজা বেগমের মেয়ে।

নিহতের স্বামী মো. হোসেন একজন রোহিঙ্গা বলে স্থানীয়রা জানায়। রেখা মণি ২০১৯ সালে চৈক্ষ্যং উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেণীর ছাত্রী ছিল। গত ৩/৪ মাস আগে রেখা মণির বাল্য বিবাহ হয়।

পুলিশ ও পরিবারের সূত্রে জানা যায়, রেপারপাড়া বাজার এলাকায় রেখা মণি তার স্বামী মো. হোসেন সহ রফিক চৌধুরীর বাড়ীতে ভাড়া থাকত। সোমবার সকালে পার্শ্ববর্তী আরেক ভাড়াটিয়া মহিলার সাথে মুরগীকে লাঠির দিয়ে আঘাত করে মেরে ফেলাকে কেন্দ্র করে ঝগড়া হয়। এঘটনার জের ধরে গৃহবধূ রাগ করে ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেন। সারাদিন গৃহবধূকে ঘর থেকে বের হতে না দেখে, গৃহবধূর মাকে খবর দিলে তিনি সহ পার্শ্ববর্তী বাসিন্দারা ঘরে ঢুকে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় গৃহবধূর লাশ দেখে আলীকদম থানায় খবর দেন।

মঙ্গলবার ভোরে লাশ বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়। ময়নাতদন্ত শেষে দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে লাশ রেপারপাড়া নিজ বাড়িতে আনা হয়। শেষ গোসল করিয়ে রেপারপাড়া বাজার মসজিদে জানাযা নামাজের পরে লাশের দাফন কাপনের কাজ সম্পন্ন হয়। লাশের শেষ গোসলের কাজ করেন নিহত রেখা মণির মা খতিজা বেগম ও চাচী ছালেহা বেগম। তারা জানান, লাশের গলার নিচে বুকের উপরে ডান পাশে কামড়ের চিহ্ন আছে।

এদিকে নিহত রেখা মণির জেঠাতো ভাই মো. আলম বলেন, আমাদের মনে হচ্ছে কেউ বা কারা মেয়েটিকে মেরে তারপর ফাঁসিতে ঝুঁলিয়ে দিয়েছে।

ভাড়াবাড়ির মালিক রফিক চৌধুরী বলেন, ফাঁসিতে ঝুলে মারা যাওয়ার বিষয়টি আমি রাত ৮টায় শুনি। মেয়ের গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন ছিল বলে মনে হয়না।

ফাঁসিতে ঝুলন্ত গৃহবধূর লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে আলীকদম থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী রকিব উদ্দিন বলেন, পার্শ্ববর্তী আরেক ভাড়াটিয়া মহিলার সাথে মুরগীকে লাঠির দিয়ে আঘাত করে মেরে ফেলাকে কেন্দ্র করে ঝগড়া হয়। রেখা মণি খুব রাগী ছিল। এঘটনার জের ধরে গৃহবধূ রাগ করে ফাঁসি খায়। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের লোকজনের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

About admin

01580-242555

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*